Textile Engineering
সাবজেক্ট রিভিউঃApparel Manufacturing Engineering
By মুহাইমিনুল অভী – November 19, 20160948
আসিফুর রহমান মানু ঃ
Textile Engineering, রয়েছে Mechanical Engineering এর সাথে নিবিড় সম্পর্ক, এদেশে প্রচলিত একটি অন্যতম আলোচনা টেক্সটাইল।
বাংলাদেশের মত একটি উন্নয়নশীল দেশে রপ্তানি আয়ের সিংহভাগি টেক্সটাইল থেকে আসে। বিশেষায়িত শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে দেশে টেক্সটাইলের দক্ষ ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে গড়ে তুলতে BUTEX এর অবদান শীর্ষে।
দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে বর্তমানে ৯টি বিভিন্ন বিষয়ে পড়ার সুযোগ রয়েছে। তার মধ্যে Apparel Engineering অন্যতম।
Apparel Engineering এর সংজ্ঞাঃ
Industrial Engineering হল সেই প্রকৌশল বিদ্যা যা মানুষের সাথে জড়িত সকল ফ্যাক্টর, উৎপাদন নিয়ে আলোচনা করা হয় এবং তা সরবরাহ ও বিতরণে ভূমিকা পালন করে থাকে, এই industrial Engineering ই হল Apparel Engineering এর নতুন ধারণা।

.

Apparel Engineers দের কাজঃ
Apparel Engineers রা অ্যাপারেলের পণ্যসমুহ বিভিন্ন পদ্ধতি ও প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বিশ্লেষণ, উন্নয়ন এবং বাস্তবায়ন করে যা শিল্প বা Industry এর কোয়ালিটি, কর্মদক্ষতা এবং উৎপাদন বৃদ্ধি করে। ইঞ্জিনিয়াররা পোশাক/উপাদানসমুহ বিভিন্ন পরিকল্পনা এবং পরিচালনার মাধ্যমে মানোন্নয়ন ঘটান এবং তার সর্বোচ্চ উন্নয়নে সহায়তা করেন। প্রশস্ততা: গার্মেন্টস শিল্পে বায়িং অ্যান্ড মার্চেন্ডাইজিং বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিয়ে উচ্চ বেতনে চাকরি করার সুযোগ আমাদের দেশে অনেক আগে থেকেই রয়েছে। তবে এই সংশ্লিষ্ট ডিগ্রিধারীর সংখ্যা পর্যাপ্ত না থাকায় অনেক বিদেশিকে দেশে এনে কাজ করাতে হচ্ছে। যার ফলে পোশাক শিল্পে ক্যারিয়ার গড়তে চালু হয়েছে মার্চেন্ডাইজিংয়ের মতো বিষয় নিয়ে উচ্চতর ডিগ্রি। রয়েছে এসব বিষয়ে প্রফেশনাল প্রশিক্ষণের সুযোগ। ভালো ক্যারিয়ার গড়তে এমন একটি প্রশিক্ষণ কোর্সের বিষয় Apparel Engineering. সেলাইয়ের কাটিং ও মেকিং ইত্যাদির মান অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক ভালো থাকায় সারা বিশ্বে আমাদের দেশের সুখ্যাতি রয়েছে । ফলে বেড়ে চলেছে গার্মেন্টস, বায়িং হাউজ, ফ্যাশন হাউজসহ পোশাক শিল্প সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা। পাশাপাশি গার্মেন্টস, বায়িং এবং মার্চেন্ডাইজিং সম্পর্কিত প্রশিক্ষিত লোকের চাহিদাও বাড়ছে ব্যাপক হারে।
বিশাল সব দায়িত্ব যাদের কাধে বর্তায় তারাই Apparel Engineers. আর এসব Apparel Engineers দের জন্মাচ্ছে দেশের অন্যতম বিদ্যাপীঠ BUTEX.
অ্যাপারেল মার্চেনডাইজার একটি অন্যতম পেশা যা এখান থেকেই সম্ভব, আর যেহেতু এটা ইন্ডাস্ট্রিয়াল তাই কোন নামকরা প্রতিষ্ঠানের GM, ED, Country Manager এখান থেকেই হওয়ার সুযোগ, যা মেকানিকাল বা ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের তুলনায় অতি সহজ এবং সল্প সময়ে। Apparel Engineering এ পড়ে এ বিষয়ের সাথে ভবিষ্যতে সম্পৃক্ততা থাকলে কাজের ক্ষেত্র তোমার মনকে নাড়া দিবে, আছে যব করার সুযোগ কিছু Green Industry তে। পরিসংখ্যানে বলছে BUTEX এর AE এর দশ বছরের বেশি সিনিওররা গড় হিসাবে বেশির ভাগই কোন না কোন ইন্ডাস্ট্রি তে জিএম বা তারো উপরের কোন পদে, কেউ বা আছেন USA সহ উন্নত বিশ্বের নামকরা সব বিশ্ববিদ্যালয়ে।
সকলের জন্যে শুভকামনা