১. MIST কি পাবলিক/প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় ? যেহেতু MIST বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালস (BUP) এর অধীনস্থ একটি প্রতিষ্ঠান এবং বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালস (BUP) একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়,তাই MIST ও একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে পরিগণিত ।প্রতিষ্ঠার পর এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়-এর অধীনে (সরকারি) ছিল , আর পরে সবগুলো সামরিক প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় BUP প্রতিষ্ঠার পর সেটি BUP এর অধীনে (সরকারি প্রতিষ্ঠান) চলে যায় ।
২. পড়ালেখার খরচ ? ৪ বছর মেয়াদী বিএসসি কোর্সের জন্য খরচ পড়বে প্রায় ২ লক্ষ ৫৩ হাজার টাকা।। সর্বপ্রথম ভর্তি কালীন খরচ প্রায় ৬০ হাজার টাকা ।সকল সরকারি চাকুরিজীবীর সন্তানের জন্য টোটাল খরচ পড়বে ১লক্ষ ৯৩ হাজার টাকা আর সিভিল স্টুডেন্ট দের 2লক্ষ ৫৩ হাজার টাকা ।অনেকেই প্রশ্ন করে (আমাকেও করা হয়েছে) অন্যান্য সরকারির বেতন তো অনেক কম MIST এ এত বেশি কেন ? point to be noted সামরিক পরিচালিত institute গুলার খরচ একটু বেশিই হয় । যেমন ক্যাডেট কলেজ,এখন খরচ একটু বেশি বলে কি ক্যাডেট কলেজ কে প্রাইভেট বলবেন ?
৩. মোট আসন সংখ্যা এবং বিভাগ সংখ্যা কত?? বিভাগ সংখ্যা ১২। সর্বমোট আসন সংখ্যা ৫৯৫। আসন বিন্যাস নিচে দেখে নিতে পারঃ

  1. Department Civil Engineering – 60
  2. Computer Science and Engineering – 60
  3. Electrical, Electronic and Communication Engineering – 60
  4. Mechanical Engineering – 60
  5. Aeronautical Engineering – 50
  6. Naval Architecture and Marine Engineering – 40
  7. Biomedical Engineering – 40
  8. Nuclear Science and Engineering – 40
  9. Environmental, Water Resources and C oastal Engineering – 60
  10. Mining & Petroleum Engineering (60)
  11. Industrial Production & Engineering (60)
  12. Architecture -25

কোটা :

  • Children of Military Personnel = 40%
  • Children of Freedom Fighters = 2%
  • Tribal Citizen = 1%
  • International Students = 3%

৪. এখানকার শিক্ষকরা কি সবাই সামরিক বাহিনী থেকে আগত? না।সামরিক বাহিনী থেকে আগত শিক্ষকদের(ইন্সট্রাক্টর) পাশাপাশি এখানে আছেন অনেক সিভিল লেকচারার(সিংহ-ভাগ) ।এছাড়াও আছেন বুয়েট এবং ঢাকা ইউনিভার্সিটি থেকে আগত শিক্ষকদের নিয়ে গঠিত গেস্ট ফ্যাকালটি।উল্লেখ্য,বর্তমানে মিস্ট(MIST),বুয়েট,কুয়েট,রুয়েট,চুয়েট থেকে সেনাবাহিনীতে সরাসরি ক্যাপ্টেন পদে যোগ দান কৃত মিলিটারি ইন্সট্রাক্টররা মোটেও চিরাচরিত মিলিটারিদের মত নন 😛 বরং তারা অনেকবেশি বন্ধুসুলভ এবং সহযোগিতাপূর্ণ ।
৫. আবাসন ব্যাবস্থা কেমন? অনেকের মতেই বাংলাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ হল -ওসমানী হল B| এর পাশাপাশি গত বছর থেকেই ছাত্র ছাত্রীদের জন্য মিরপুর DOHS এ আরও দুটি হলের ব্যবস্থা করা হয়েছে যা ঢাকা এবং ঢাকার বাহিরের মোটামুটি সকল ছাত্র ছাত্রীদের আবাসন ব্যবস্থা দিতে সক্ষম।অন্যান্য সরকারি ভার্সিটির হল আর আমাদের হলের খাবার খেলেই শুধু MIST এর সাথে অন্যান্য ভার্সিটির আবাসনের আকাশ পাতাল পার্থক্য বোঝা যাবে 🙂
৬. পরিধানকৃত পোশাক এর ধরন কেমন ? জেনে রাখা ভাল (MIST) বাংলাদেশের একমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় যেখানে ছাত্র ছাত্রীদের জন্য রয়েছে নির্দিষ্ট ইউনিফর্ম । তবে আশার কথা এই যে,সপ্তাহের শেষ দিন সকল ছাত্র ছাত্রী নিজেদের ইচ্ছামত রুচিশীল পোশাক পরিধান করতে পারবে ।
৭. অবস্থান কোথায়? মিরপুর সেনানিবাস (মিরপুর ১২ হতে কিছুটা ভেতরে )। ইহা ম্যানগ্রোভ বা মিরপুর ইন্সটিটিউট নহে 😛 মিলিটারি ইন্সটিটিউট B|
৮. সপ্তাহিক ছুটি কত দিন?? MIST তে প্রতি শুক্র এবং শনিবার সপ্তাহিক ছুটি পালিত হয় ।
৯. এখানকার ছাত্র ছাত্রীদের কি পিটি প্যারেড করতে হয় ?? অনেকেরই ভ্রান্ত ধারনা আছে যে যারা এমআইএসটি তে পরে তাদেরকে পিটি প্যারেড করতে হয় । সম্পূর্ণ ভুল তথ্য । তবে প্রায় প্রতি মাসে একবার কমান্ড্যান্ট স্যারের উপদেশ শোনার জন্য আমাদেরকে প্লেগ্রাওউন্ডে জড় হতে হয় 😛
১০.পরিবেশ ? আমার মতে দেশের মদ্ধে বিদেশের স্বাদ পেতে চাইলে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর মদ্ধে এমআইএসটি অন্যতম 🙂 আমাদের রাজপথে স্লোগান দেবার মত ধৃষ্টতা কেউ দেখায় না,তাই পাখিদের চলাচল স্বভাবসুলভ :3 (আশা করি যা বলছি তা বুঝছ 😛 ) । এমআইএসটি এর পেছনেই আছে ২য় মনপুরাখ্যাত অসম্ভব সুন্দর এক পরিবেশ । ইচ্ছে হলে দেখে যেতে পার 🙂
১১.শ্রেণীকক্ষের পরিবেশ ? প্রায় প্রতিটি ক্লাসেই রয়েছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রন ব্যবস্থা । রয়েছে প্রোজেক্টর,হাই কনফিগারড ডেক্সটপ এবং বসার জন্য সিঙ্গেল ডেস্ক 🙂 এছাড়া আছে সীমাহীন প্রাকৃতিক আলো বাতাস 🙂
১২. লাইব্রেরি সুবিধা ? ওয়াইফাই সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রন ব্যবস্থা সমৃদ্ধ একটি আধুনিক গ্রন্থাগার এবং একটি কমন রুম। ছাত্র ছাত্রীদের প্রয়োজনীয় সকল বই এখান থেকেই সরবরাহ করা হয়ে থাকে। বই কেনার প্রোয়োজন হয় খুবই কম 🙂
১৩. ক্লাবস ?এমআইএসটি রোবটিক্স ক্লাবের খ্যাতি বর্ণনায় আমার চেয়ে বিভিন্ন হাইপার টেক্সক্ট ট্রান্সফার প্রোটোকল অনেক বেশি কার্যকর । দেশে দিশে কোন জায়গায় গিয়েই আমরা খালি হাতে ফিরেছি এই কথা কেউ বলতে পারবে না। রোবটিক্স ক্লাব ছাড়াও আছেMIST Photography Club, MIST Debating Society, MIST Literature Club,MIST Programming Club…. এবং আরও অনেকগুলো ক্লাব। ক্লাবগুলোর কার্যক্রম প্রত্যেক ক্লাবের নিজস্ব সাইট থেকে দেখে নিতে পার।
১৪. ল্যাব সুবিধা ?? এখানে রয়েছে প্রত্যেক ডিপার্টমেন্ট এর জন্য সর্বাধিক সংখ্যক এবং সর্বাধিক সুবিধা সমৃদ্ধ ল্যাব। এখানকার ল্যাব গুলোতে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি গুলো অন্য যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আধুনিক এবং উন্নত এবং প্রায় প্রতিটি ল্যাবই এয়ার কন্ডীশান্ড সুবিধা সমৃদ্ধ ।
১৫. সামরিক এবং বেসামরিক ছাত্র ছাত্রী বলতে কি বুঝানো হচ্ছে ??
MIST তে মোট দুই প্রকার ছাত্র ছাত্রী পড়াশুনা করে।
১.সামরিক বাহিনীঃ সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী থেকে আগত যারা কিনা বেসামরিক ছাত্র ছাত্রীদের সাথেই (তোমাদের সাথেই) পড়বেন এবং যাদের ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ ভিন্ন।
২.বেসামরিক ছাত্র ছাত্রীঃ তোমরা যারা ভর্তিচ্ছু তারা 🙂 বিগত বছরের কথা বিবেচনা করলে দেখা যায় ১০০ জনে প্রায় ১৩/১৪ জন আসেন সামরিক বাহিনী থেকে ।
কিছু কিছু ক্ষেত্রে বাংলিশ লেখার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। আমার সকল MIST পড়ুয়া বন্ধুদেরকে অনুরোধ করব সবাই যেন ২/৪ করে MIST সম্পর্কিত তথ্য শেয়ার করার চেষ্টা করে । আর ভর্তিচ্ছু সবাইকে বিভিন্ন প্রশ্ন করে গ্রুপে পোস্ট দেয়ার জন্য সাধুবাদ জানাই। MIST তে তোমরা পড়ার সুযোগ পাও আর নাইবা পাও,আমরা সবাই তোমাদেরকে সঠিক তথ্যটি পৌঁছে দেয়ার দায়িত্ববোধ করি।আর এটা তোমাদের অধিকারও বটে ।
সুন্দর জীবনের প্রত্যাশায় । 🙂